আজ মধ্যরাত থেকে নিষিদ্ধ হচ্ছে মাছ ধরা

অভয়াশ্রম হওয়ায় ভোলার মেঘনা ও তেতুঁলিয়া নদীতে আগামী ২ মাসের জন্য ইলিশসহ সব ধরনের মাছ ধরা বন্ধ হচ্ছে আজ মধ্যরাত থেকে। সরকারের এ নিষেধাজ্ঞাকে স্বাগতম জানিয়ে জেলেরা নৌকা, জালসহ মাছ ধরার সকল সরঞ্জাম নদী থেকে সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তবে জেলেরা বলছেন নিষেধাজ্ঞাকালীন সরকারি বরাদ্দকৃত চাল দ্রুত বিতরণ এবং ব্যাংক ও এনজিও ঋণের কিস্তির টাকা আদায় বন্ধ করলে সরকারের নিষেধাজ্ঞা মানতে তাদের কোনো সমস্যা নেই। এজন্য মৎস্য বিভাগের মাধ্যমে সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন জেলেরা।

ভোলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, ১ মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত ভোলা সদরের ভেদুরিয়া থেকে চর রুস্তম ১০০ কিলোমিটার ও চর ইলিশা থেকে চর পিয়ালের ৯০ কিলোমিটারসহ মোট ১৯০ কিলোমিটার পর্যান্ত মাছের অভয়াশ্রম হওয়ায় ভোলার মেঘনা, তেতুঁলিয়া, বুড়া গৌড়াঙ্গ, জাহাঙ্গলিয়া, গনেশপুর নদীতে ইলিশসহ সব ধরনের মাছ শিকার, বাজারজাত, সংরক্ষণ ও বিক্রির ওপর নিষেধাজ্ঞার জারি করেছেন সরকার। আর নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে ইতোমধ্যে জেলেদের সচেতনতামূলক কাজ সম্পন্ন করেছে মৎস্য বিভাগ।

ভোলা সদর উপজেলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান জানান, জেলেদের দাবির প্রেক্ষিতে আগামী ৭ দিনের মধ্যে জেলেদের নামে বরাদ্দকৃত চাল বিতরণ শুরু করা হবে। এছাড়া নিষেধাজ্ঞার সময় কিস্তির টাকা আদায় বন্ধ থাকার জন্য তারা কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছেন।

জানা গেছে, ভোলার সাত উপজেলায় প্রায় সাড়ে ৩ লাখ জেলে থাকলেও ভোলা মৎস্য বিভাগের নিবন্ধনকৃত জেলের সংখ্যা রয়েছে ১ লাখ ৩২ হাজার ২৬০ জন। আর এবছর দুই মাসের নিষেধাজ্ঞার সময় চাল বরাদ্দ হয়েছে ৭০ হাজার ৯৪৩ জন জেলের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here